Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিপূথিবী ও মহাকাশের মধ্যে অবিশ্বাস্য ১০টি তথ্য

পূথিবী ও মহাকাশের মধ্যে অবিশ্বাস্য ১০টি তথ্য

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রিয় ভাই প্রথমে আমার সালাম নেবেন । আশা করি ভালো আছেন । কারণ TipsTrickBD এর সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে । আর আপনাদের দোয়ায় আমি ও ভালো আছি । তাই আজ নিয়ে এলাম আপনাদের জন্য একদম নতুন একটা টপিক। আর কথা বাড়াবো না কাজের কথায় আসি ।


১। বয়স্ক মানুষদের চেয়ে শিশুদের শরীরে ১০০ টি হাড় বেশি থাকে। জন্মের সময় বাচ্চাদের প্রায় ৩০০ টি হাড় থাকে। বয়সের সাথে সাথে এই হাড়গুলো 206 টি হয়
২। গ্রীষ্মের সময়ে প্যারিসের আইফেল টাওয়ার প্রায় ১৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। এর কারণ হলো যখন কোনও পদার্থ উত্তপ্ত হয়ে যায়, এর কণাগুলি আরও বেশি সরে যায় এবং এটি একটি বৃহত পরিমাণে রূপ নেয় – যা তাপীয় প্রসারণ হিসাবে পরিচিত। বিপরীতে, তাপমাত্রা হ্রাস পেলে এটি আবার সংকোচনের কারণ হয়।

৩। ২.৩ বিলিয়ন বছরের মধ্যে পৃথিবী এতো বেশি উত্তপ্ত হয়ে যাবে যে এতে কোনো প্রাণের অস্তিত্ব থাকবেনা। উক্ত সময়ের পর পৃথিবী মঙ্গল গ্রহের মত একটি বিশাল মরুভুমিতে পরিণত হবে। বিজ্ঞানীরা ধারণা করেছেন ততদিনে সূর্য অবশেষে আমাদের পৃথিবীকে গিলে ফেলবে।
৪। সম্পূর্ণ পৃথিবীর মোট অক্সিজেনের ২০% আসে শুধুমাত্র আমাজন রেইন ফরেস্ট থেকে। আমাদের বায়ুমণ্ডলে প্রায় ৭৮ শতাংশ নাইট্রোজেন এবং ২১ শতাংশ অক্সিজেন নিয়ে গঠিত। ৫.৫ মিলিয়ন বর্গকিলোমিটার (২.১ মিলিয়ন বর্গমাইল) জুড়ে বিস্তৃত অ্যামাজন রেইনফরেস্ট উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অক্সিজেন প্রদান করে ও প্রচুর কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করে থাকে
৫। পৃথিবী হলো বিশাল একটি চুম্বক। পৃথিবীর মূল অভ্যন্তরে তরল লোহার একটি গোলোক রয়েছে। তাপমাত্রা এবং ঘনত্বের পরিবর্তনের ফলে এই লোহার স্রোত তৈরি হয়, যার ফলস্বরূপ বৈদ্যুতিক স্রোত তৈরি হয়।এই স্রোতগুলি এক চৌম্বকীয় ক্ষেত্র তৈরি করে
৬। হাওয়াই দীপপুঞ্জ প্রতি বছর আলাস্কার ৭.৫ ইঞ্চি করে কাছে চলে আসছে। পৃথিবীর ভূত্বকটি টেকটোনিক প্লেট নামে বিশালাকার টুকরোতে বিভক্ত হয়ে আছে। এই প্লেটগুলি স্থির গতিতে রয়েছে। তবে গরম ও কম ঘন পাথর শীতল হওয়ার এবং ডুবে যাওয়ার আগে উঠে এসে বৃত্তাকার সংবহন স্রোতগুলির উত্থান দেয় যা ধীরে ধীরে তাদের উপরে টেকটোনিক প্লেটগুলি সরিয়ে দেয়। হাওয়াই প্যাসিফিক প্লেটের মাঝখানে বসে আছে , যা আস্তে আস্তে উত্তর-আমেরিকা উত্তর আমেরিকার প্লেটের দিকে প্রবাহিত হয়ে আলাস্কার দিকে ফিরে যাচ্ছে।
৭। নিউট্রন তারকা হলো জ্বালানী ফুরিয়েছে এমন একটি বিশাল তারার অবশিষ্টাংশ। মৃত নক্ষত্র্র সুপারনোভাতে বিস্ফোরিত হয় যখন মহাকর্ষের কারণে এর কোরটি নিজেই পড়ে যায় তখন এটি একটি অতি ঘন নিউট্রন তারকা তৈরি করে। অবাক করার বিষয় হলো এক চা চামচ নিউট্রন তারকার ওজন হচ্ছে 6 বিলিয়ন টন।
৮। পৃথিবীতে কিছু কিছু ধাতু রয়েছে যা এতটাই প্রতিক্রিয়াশীল যে পানির সংস্পর্শে আসলেই সেগুলো বিস্ফোরিত হয়ে যায়। এরুপ কয়েকটি ধাতু হলোঃপটাসিয়াম, সোডিয়াম, লিথিয়াম, রুবিডিয়াম এবং সিজিয়াম।
৯। কোটি কোটি মাইক্রোস্কোপিক প্ল্যাঙ্কটন জীবাশ্ম থেকে চক তৈরি করা হয়। কোকোলিথোফোর্স নামক এ এককোষী শৈবাল 200 মিলিয়ন বছর ধরে পৃথিবীর সমুদ্রগুলিতে বাস করেছে।
১০। সূর্য থেকে পৃথিবীতে আলো আসতে সময় লাগে মাত্র ৮ মিনিট ৯ সেকেন্ড। মহাকাশে আলো প্রতি সেকেন্ডে 300,000 কিলোমিটার (186,000 মাইল) ভ্রমণ করে। পৃথিবী ও সূর্যের মাঝে ৯৩ মিলিয়ন মাইল অতিক্রম করতে ৮ মিনিট ৯ সেকেন্ড নিতান্তই সামান্য সময়।

তাহলে ভাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন TipsTrickBD এর সাথে থাকুন।ধন্যবাদ ।

5 months ago (February 19, 2021) 186 Views
Tags
Direct Link:
Share Tweet Plus Pin Send SMS Send Email

About Author (8)

Author

I love "allah" and my family

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts



© 2021 All Right Received