HomeLife Styleস্মার্ট হওয়ার ৫টি কার্যকর ইউনিক টিপস

স্মার্ট হওয়ার ৫টি কার্যকর ইউনিক টিপস

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রিয় ভাই প্রথমে আমার সালাম নেবেন । আশা করি ভালো আছেন । কারণ TipsTrickBD এর সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে । আর আপনাদের দোয়ায় আমি ও ভালো আছি । তাই আজ নিয়ে এলাম আপনাদের জন্য একদম নতুন একটা টপিক। আর কথা বাড়াবো না কাজের কথায় আসি ।

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় বন্ধুরা, সকলেই সুস্থ্যতার সাথে স্মার্ট হওয়ার পথে ধাপবান হচ্ছেন বলে আশা করছি। আজকে আবারো আপনাদের সামনে হাজির হলাম- স্মার্ট হওয়ার সহজ ও ইউনিক কিছু টেকনিক নিয়ে। আশা করছি, টেকনিকসমূহ রপ্ত করার মধ্য দিয়ে স্মার্ট হওয়ার গুণাবলি অর্জন করবেন। তো চলুন বন্ধুরা বেশি দেরি না করে মূল আলোচনার দিকে যাওয়া যাক। প্রতিদিন কত কথাই তো বলি কিন্তু একটিবারের জন্য হলেও কি আমাদের মনের মধ্যে এহেন প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে, আমার কথায় কেন অন্যরা আকৃষ্ট হননা, কেন অমনোযোগী হয়ে যান, কেন তাদের মাঝে বিরক্তির ভাব চলে আসে? আর অন্যকেউ কথা বললে সবাই বাকরুদ্ধ হয়ে অবাক নয়নে তার দিকে তাকিয়ে থাকে। তার কথায় যেন তাদের আশ্চর্যের সীমা নেই। হ্যাঁ বন্ধুরা, তাদের কথার মাঝে জাদুকরি কিছু নেই; আছে কিছু অসাধারণ ভিন্নতা। তবে সচরাচর সবার মতো পরিচিত কোন বৈশিষ্ট্যের কথা বলবো না। কিন্তু প্রতিনিয়ত আপনার চোখের সামনেই ঘটছে যে ঘটনা যা আপনি ঘুনাক্ষরেও আমলে নেন না। প্রথমত, যার/ যাদের সাথে কথা বলবেন/ যোগাযোগ করবেন, দেখা হওয়ার সাথে সাথেই সুন্দর করে মুচকি হেসে সালাম/ আদাব (স্বীয় ধর্মীয় সম্বোধনসূচক বাক্য) দিয়ে করমর্দন করবেন। সালাম কিংবা আদাব দেওয়ার সময় কখনোই বয়সের পার্থক্যের দিকে নজর দিবেন না। কারণ এতে আপনার অহংবোধের বহিঃপ্রকাশ পায়। আর অহংকার মানুষকে সম্মানিত করার বদলে মর্যাদার দিক থেকে টেনে নিচে নামায়। সুতরাং এবিষয়ে সর্তকতা অবলম্বন করাই উত্তম। দ্বিতীয়ত, কুশলাদি বিনিময় করুন। তার নিজের ও পরিবার- পরিজনের যতদূর সম্ভব খোঁজ- খবর নিন। কথা বলার সময় সবসময় মুখে হাসি ধরে রাখুন। তৃতীয়ত, ছোটদের স্নেহ করুন- বড়দের শ্রদ্ধা করুন। আপনি অন্যকে সম্মান দিতে কুন্ঠা বোধ করলে নিজে কখনোই সম্মান পাবেন না। ছোটদের মাথায় হাত বুলিয়ে দিন। বড়দের সাথে শ্রদ্ধাবনত স্বরে কথা বলুন। পারলে তাদের কাজে সহযোগিতা করুন। চতুর্থত, জ্ঞানের দিক থেকে প্রচুর জানুন। কারণ জ্ঞান মানুষকে বিনয়ী, সহনশীলতা, উদার হতে শেখায়। আপনি যত বেশি জানবেন ততই বেশি স্মার্টনেসের বৈশিষ্ট্য আয়ত্তে চলে আসবে। জ্ঞানী ব্যক্তিকে সবাই শ্রদ্ধার চোখে দেখেন। সমাজে তাদের আলাদা অবস্থান রয়েছে বিধায় তাদের কথার মূল্যায়ন করা হয়। এই প্রভাবের জন্য আপনি যদি সুদর্শন বা শৌর্য- বীর্যধারী নাও হন তবু মানুষের কাছে আপনি, আপনার কথা, চাল-চলন, কাজ স্মার্ট বলে অভিহিত হবে। পঞ্চমত, কথা বলুন প্রাণ খুলে। তবে সাবধান, বাচাল হওয়া যাবে না। কথা বলার ক্ষেত্রে সীমালঙ্ঘন করা স্মার্ট হওয়ার ক্ষেত্রেই শুধু নয় অন্যান্য ক্ষেত্রেও এটা বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। প্রাণ খুলে হাসি মুখে কথা বলুন সবার সাথে। আপনার অবস্থানরত পাড়া- মহল্লার সবার সাথেই মিশুন। বিশেষ করে শিশুদের সাথে মিশতে পারলে আরো কার্যকরি হয়।

তাহলে ভাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন TipsTrickBD এর সাথে থাকুন।ধন্যবাদ ।

আজ এই পর্যন্ত। আবার আসব আপনাদের সামনে কার্যকর ইউনিক টিপস নিয়ে। সবাই ভালো থাকবেন। আল্লাহ হাফিজ
1 month ago (March 17, 2021) 52 Views
Tags
Direct Link:
Share Tweet Plus Pin Send SMS Send Email

About Author (3)

Contributor

I am blog Writter.

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts



© 2021 All Right Received